শেখ হাসিনার মহত্ব পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল : শেখ পরশ

প্রকাশিত: ৩:৫৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

শেখ হাসিনার মহত্ব পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল : শেখ পরশ

প্রিন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক : যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা এদেশের মানুষের প্রতি যে উদারতা, মহত্ব, ত্যাগ দেখিয়েছেন তা পৃথিববীর ইতিহাসে বিরল।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের প্রেক্ষাপট থেকে ফিরে এসে এদেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসা, মানুষের অধিকার আদায়ে অন্তহীন সংগ্রাম, ধারাবাহিক আন্দোলেন শেখ হাসিনা যে বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দিয়েছেন। এটা আমার মনে হয় প্রথিবীর ইতিহাসে বিরল। তিনি যে মহত্ব দেখিয়েছেন, উদারতা দেখিয়েছেন, তা বিরল। যে দেশে বাবা, মা, ভাই বোন, পরিবারের সকল সদস্যকে অমানবিকতার নিষ্ঠুর হত্যাকা-ে হারিয়েছেন। সেই দেশের জন্য দেখিয়েছেন মানবিকতা, উদারতা কাকে বলে। মানবিক কাজ কিভাবে করতে হয়। সেদেশের প্রতি কিভাবে সেবা করতে হয়। সারা জীবন ত্যাগ-তিতিক্ষা করে কিভাবে মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন করতে হয়, দেখিয়েছন। এটা বিরল উদাহরণ।

আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানে যুবলীগ আয়োজিত মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি’র ৭৪ তম শুভ জন্মদিনের শুভেচ্ছা স্বরুপ বৃক্ষরোপন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন – যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।
সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল। সঞ্চালনা করেন- ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল হোসেন।

শেখ ফজলে শামস পরশ বলেন, শেখ হাসিনা মানবতার নেত্রী। এটা কোন রাজনৈতিক মন্তব্য নয়। শেখ হাসিনা একজন রাজনীতিবিদ হওয়ার পূর্বে আমার দেখা সবচেয়ে মানবিক একটা নেত্রী। তিনি শিশুদের কাছে সরল, গৃহকর্মীদের প্রতি উদার, প্রতিবন্ধিদের প্রতি সহমর্মি, সমাজের প্রান্তিক শ্রেনীর মানুষের যত্নশীল। সারাজীবন মানবিকতার নির্দশন রেখে গেছেন। তার পিতা সারাজীবন এদেশের মানুষের কল্যাণে জেল-জুলুম অত্যাচার নিপীড়ন সহ্য করেছে। তিনি পিতাকে নিয়ে স্কুলে যেতে পারেননি, বেড়াতে যেতে পারেন না। এই ত্যাগ তিনি বয়ে বেড়াচ্ছেন, এজন্য আমাদের কৃতজ্ঞ থাকা উচিত এবং আমরা থাকব।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, শেখ হাসিনা ত্যাগের মূল্য পাননি। ১৫ আগস্ট নিজেরাই তারা (বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা) স্বপরিবারে অপরিসীম মূল্য দিয়ে জাতিকে সারাজীবনের জন্য ঋণী করে গেলেন। রক্ত দিয়েও তাদরে ঋণ শোধ করা যাবে না। সুতারাং আমি মনে করি এদেশের মানুষের জন্য তাদের ঋণ শোধ হবার নয়।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সারাজীবন মানুষের জন্য কাজ করেছে। তার কন্যা সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাও সারাজিন কাজ করছেন। পিতার আদর্শে মানুষের ভাগ্য উন্নয়নই তার লক্ষ্য। শেখ হাসিনা লক্ষ্যপুরণে শেখ পরশের নেতৃত্বে মানবিক কাজ করছে যুবলীগ। আজ সারা বাংলাদেশে নেত্রীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা স্বরুপ বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন করেছি। ইতোমধ্যে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে যুবলীগের নেতাকর্মীরা ৩২ লাখ গাছ রোপন করেছেন। বিপদগামী কোন যুবক যুবলীগের পতাকা তলে আসতে পারবে না। মহানগর, জেলা-উপজেলা ইউনিয়ন, ওয়ার্ডে যখন পরিচ্ছন্ন মানবিক যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করতে পারব, সেদিনই আমাদের স্বার্থক।